গাছের হাসপাতালের ভিডিও দেখুন

– বিজয় চক্রবর্তী ; বাংলাদেশ থেকে ফিরে

কিছুদিন আগে আমার ফেসবুক পেজে গাছ ডাক্তারের একটা ছবি পোস্ট করা হয়েছিল | ছবিটা একজন বন্ধু মারফত পেয়েছিলাম , দেখে অন্য রকম লাগে , ছবিটি শেয়ার করি | তারপর থেকে সকলের একই প্রশ্ন এই গাছ ডাক্তার আসলে কে ?

আমারও ধীরে ধীরে গাছ ডাক্তার নিয়ে আগ্রহ বাড়তে লাগল | খোঁজ করতে থাকলাম গাছ ডাক্তার | খুঁজতে খুঁজতে অবশেষে তাকে পেলাম | গাছ ডাক্তার থাকেন প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে | বাংলাদেশে গিয়ে তার দেখা মিলল ; মানুষটির নাম আহসান রনি | আহসান রনিই “গ্রিন সেভার্স” এর প্রতিষ্ঠা করেন ৯ বছর আগে , যখন তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নৃবিদ্যা নিয়ে পড়তেন | তারপর পাঁচ বছর আগে গাছেদের হাসপাতাল তৈরি করেন | বাংলাদেশের আগারগাও পরিবেশ অধিদপ্তরের কাছে তাদের অফিস |

গাছ হাসপাতালের ডাক্তার আসলে ‘গাছের মালি’ যা গাছের পরিচর্যা করেন | আহসান রনি মালিদের গাছ নিয়ে নানা রকম প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের গাছেদের ক্লিনিকের ডাক্তার করে নেন | রনির কথায় , “মালিদের আমরা সবাই তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করি , কিন্তু ভেবে দেখা দরকার তারা তথাকথিত মানুষের ডাক্তার থেকে ছোট নয় , তাদের কাজ ছোট নয় , বরং আরেকটু এগিয়ে ভাবলে তারা আরো বড় কাজটি করছেন | গাছ না থাকলে , গাছ অসুস্থ হলে তো সমস্ত পৃথিবীই অসুস্থ হয়ে যাবে | ঠিক এই জায়গা থেকে মালিদের গাছের ডাক্তার নাম দেওয়ার ভাবনা আসে তাঁর | এছাড়া তিনি চান এই ভাবে অন্তত দশ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থান হোক |”

গ্রিন সেভার্স গাছ হাসপাতালের উদ্যোগে ঢাকা শহরে গড়ে উঠেছে ৩৬০০ ছাদ বাগান | তাদের লক্ষ্য ঢাকার চার লক্ষ ছাদে গাছ বাগান করা | এছাড়া প্রায় ৩০ হাজার বাগান থেকে তাদের কাছে ডাক আসে | এখন গাছ হাসপাতালের অধীনে ১৯ জন ‘গাছ-ডাক্তার’ নিয়মিত কাজ করছেন | তারমধ্যে আবার ৭ জনের কৃষিবিদ্যায় ডিপ্লোমা আছে | সংখ্যাটি প্রতিদিনই বাড়ছে | গ্রিন সেভার্স গাছ লাগানোর ক্ষেত্রে প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারকে গুরুত্ব দেয় , প্লাস্টিকের ফেলে দেওয়া জিনিস থেকে তারা টব বানায় গাছের জন্য |

সোসাল মিডিয়াতে যখন ছবিটি পোস্ট করি , ছবির উপরে লেখা ছিল ‘লোকটা অনেক শতাব্দী ভবিষ্যতে বাস করে |’ আহসান রনি সত্যিই ভবিষ্যতের নাগরিক | বাংলার এই সময়ের সুপরিচিত কবি বিভাস রায়চৌধুরীর কবিতায় উঠে আসে , “উদ্ভিদ প্রথম প্রাণ” | উদ্ভিদ সৃষ্টি হয়েছিল বলেই সমস্ত প্রাণিজগৎ সৃষ্টি হতে পেরেছিল , সৃষ্টি হতে পেরেছিল মানুষের | এই সহজ শাশ্বত সত্যটা আমরা আজ ভুলতে বসেছি , তাই গাছকে এখন আর প্রয়োজন বলে মনে করি না , কোটি কোটি গাছ কেটে ফেলি কিছু না ভেবেই | আর তার ফলও ফলতে বসেছে , নদী শুকিয়ে যাচ্ছে , বাতাস দূষণে ভরে গেছে , পৃথিবী এতো উত্তপ্ত হয়ে যাচ্ছে যে হয়তো মানুষের একমাত্র দেশ ‘পৃথিবী গ্রহ’ থেকে আটশোকোটি মানুষই পরিবেশ উদবাস্তুতে পরিনত হবে | ঠিক এই সময়ে দাঁড়িয়ে গাছের ডাক্তার আহসান রনি আমাদের কাছে বাড়তি অক্সিজেন তো বটেই |

Advertisements